Islamic lesson

নামাজের ইহকালীন উপকারিতা

 নামাজ একটি শারীরিক ইবাদত। নামাজের মাধ্যমে শারীরের অনেক অনেক উপকার হয়। শারীরিকভাবে আমরা অনেক সুস্থ জীবন-যাপন করতে পারি। নামাজের ফজিলত সম্পর্কে কুরআন শরীফে ১০৯টি আয়াত নাজিল হয়েছে।

আমরা যে মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছি এইজন্য আমাদের শুকরিয়া আদায় করা উচিত আল্লাহ তায়ালার কাছে। কেননা ইসলাম একটি পূর্ণাঙ্গ জীবন বিধান সম্পর্কে আমাদের ধারণা দেয়।

“যথাসময়ে নামাজ আদায় করা প্রত্যেক মুমিনের উপর ফরজ করা হয়েছে” (সূরা নিসা -১০৩)। “নিশ্চয়ই নামাজ অশ্লীল ও গর্হিত কাজ থেকে বিরত রাখে”(সূরা আনকাবুত -৪৫)।

নামাজের শারীরিক উপকারিতা:

নামাজ পড়লে শারীরিক ব্যায়াম হয় সাথে সাথে আরও বিভিন্ন রোগ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। যেমন গলার রোগ ,হাড়ের রোগ মেরুদন্ড রোগ,মানসিক রোগ প্রভৃতি।
যেহেতু পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের পূর্বে আমাদের ওজু করতে হয় এই কারণে আমাদের প্রতিটি অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ অনেক পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকে বিভিন্ন স্কিন ডিজিজ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

সামায়ানুবর্তিতা শিক্ষা:

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করলে রুটিন খুব সহজেই নিয়ন্ত্রণে আনা যায়। সঠিক সময় নামাজ আদায় করার ফলে আমাদের প্রতিটি কাজ সঠিক সময়ে পালন করা সম্ভব হয়ে যায়।

শৃঙ্খলা শিক্ষা:

একজন মুমিন ব্যক্তি যখন সারারাত ঘুমিয়ে থাকে এরপর ফজরের নামাজ আদায়ের জন্য ঘুম থেকে উঠে পড়ে তখন তার দিনের শুরুটা অনেক তাড়াতাড়ি হয়। এ কারণে তার প্রত্যেকটি কাজ অনেক তাড়াতাড়ি সম্পন্ন হয়। এভাবে নামাজ আমাদের শৃঙ্খলা শিক্ষা দেয়।

পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা শিক্ষা:

নামাজ আদায় করতে হলে আমাদের পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের পূর্বেই অজু করতে হয়। এ কারণে আমাদের পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকা অনেক সহজ হয়ে যায়। নিজের অজান্তেই আমরা অনেক পাক-পবিত্র থাকতে পারি।

ঐক্যবদ্ধ হওয়ার শিক্ষা:

আমরা মসজিদে ধনী- গরিব সকল শ্রেণীর মানুষ একসাথে জামাতে নামাজ আদায় করি। এই কারণে আমাদের মধ্যে সহানুভূতি সৃষ্টি হয়। এ কারণে একজনের বিপদে আর একজন খুব সহজেই এগিয়ে আসে এবং পাশে দাঁড়ায়।
https://www.incometips.xyz/feeds/posts/default

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button